68 জন দেখেছেন
06 আগস্ট 2019 "রোগ ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা
10 এপ্রিল পূনঃরায় খুলুন

3 উত্তর

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
দুধ এবং আনারস একসাথে খেলে দুইটিতে যে পুষ্টিগুণ বিদ্যমান আছে সেগুলো একসাথে পাবেন । আমি প্রায়ই আনারস এবং দুধ ব্লেন্ডার মেশিনে দিয়ে শরবত করে পান করি । বাজারে আনারস-দুধ এর দইও পাওয়া যায় ।

আমি অবশ্য সময়ে সময়ে বিভিন্ন ফলের সাথে দুধ মিশ্রিত করে করে শরবত করে পান করি, তাই আনারসও আমার পছন্দের তালিকায় আছে ।

আমার রেফ্রিজারেটর-এ এখনো অর্ধেক কাটা আনারস রাখা আছে । আনারস-দুধ এর চমৎকার রেসিপি আছে যেগুলো খুব সুস্বাদু । এখানে কিছু নমুনা আছে, শিখে নিতে পারেন ।

বাজারে আনারস আইসক্রিমও পাওয়া যায়, এবং আইসক্রিম-এ দুধ মেশানো হয় এটা আমরা সবাই জানি ।

আনারসের সাইট্রিক অ্যাসিড দুধেকে জমাট বাঁধতে সাহায্য করে, অর্থাৎ দুধকে দইতে পরিণত করতে ভূমিকা রাখে । আনারস ছাড়া লেবুতেও সাইট্রিক অ্যাসিড বিদ্যমান ।

আনারস (অথবা লেবু) এবং দুধ একসাথে খাওয়ার পর যদি আপনার পেটে দই উৎপন্ন হয় তারপরও আপনি অসুস্থ্য হবেন না, কারণ মানুষের পরিপাকতন্ত্রে যে হাইড্রোক্লোরিক অ্যাসিড থাকে তা যেকোনো দইকে অনায়াসে হজম করতে পারে । একজন সুস্থ্য-স্বভাবিক মানুষ দই খেয়ে আজ পর্যন্ত মারা যায়নি ।

সাইট্রিক এসিডের পাশাপাশি আনারসে ব্রোমেলাইন নামক একধরণের এনজাইম থাকে যেটা প্রোটিনকে ভাঙতে সহায়তা করে । লক্ষ্য করে দেখবেন একটু ঘা যুক্ত অথবা সংবেদনশীল জিহ্বায় আনারস খেলে একটু পুড়ে যায় (মৃদু ব্যাথা অনুভব করি ) । এটা হয় ব্রোমেলাইন এনজাইমের কারণে । ব্রোমেলাইন এনজাইম পাকস্থলীতে খাদ্যের ভাঙ্গনকে দ্রুততর করে এবং হজমে স্বাচ্ছন্দ আনে ।

তাই কোনো বৈজ্ঞানিক তত্ত্ব দ্বারাই প্রমান করা সম্ভব নয় যে আনারস এবং দুধের মিশ্রণ মানুষের অসুস্থ্যতা অথবা মৃত্যুর কারণ ।

অতঃপর দুইটি একসাথে খেলে আপনি মরবেন না, বরং চরম শারীরিক প্রশান্তি অনুভব করবেন ।
(বাংলা কোরা থেকে সংগৃহীত )
06 আগস্ট 2019 উত্তর প্রদান
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ

আনারস ও দুধ খেলে মানুষ বিষক্রিয়ায় মৃত্যুবরণ করে,এরকম একটি ধারণা সমাজে প্রচলিত আছে।বাড়ির বড়রা ছোটদেরকে এই খাবার একসঙ্গে খেতে নিষেধ করেন এই কারনে যে,আনারস ও দুধ একসাথে খেলে তারা বিষক্রিয়ায় মারা যাবে।

কিন্তু প্রকৃতপক্ষে তা একটা ভুল ধারণা মাত্র।

তবে এটা ঠিক যে,আনারস একটা এসিটিক ফল।যা দুধের সাথে মেশালে দুধ ফেটে যাবে।আর এই ফেটে যাওয়া দুধ খেলে বড়জোড় আপনার পেট খারাপ হবে।এর বেশি কিছুই না।

বাহিরের দেশে এরকম বহু খাবার তারা খায় যা আনারস ও দুধের মিশ্রণে তৈরী করা হয়।তারা তো আনারস ও দুধ খেয়ে দিব্যি বেঁচে আছে।সুতরাং এই কুসংস্কার মেনে নিবেন না।আমরা যে ফরমালিন যুক্ত খাবার খাই তা এর চেয়ে অধিক ক্ষতিকর।

28 জানুয়ারি উত্তর প্রদান
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ

দুধের অন্যতম উপাদান হল ক্যাসিন (Casein) । দুধের সাথে যখন কোন অ্যাসিডিক পদার্থ মেশানো হয়, যেমন লেবু, আনারস, বা টক জাতীয় অন্য কোন ফল বা খাবার, তখন তা দুধকে ভেঙ্গে ক্যাসিন আলাদা করে ফেলে এবং দুধ পরিণত হয় ছানায়।

এমনকি মানবদেহে পাকস্থলীর মাঝেও এক বিশেষ প্রকার গ্যাস্ট্রিক অ্যাসিড থাকে যা হজমে সহায়তা করে। দুধ পান করলে পাকস্থলীতে পৌঁছানোমাত্রই সেটি ক্যাসিন আলাদা করে দুধকে ছানায় পরিণত করে। এটি একটি স্বাভাবিক হজম প্রক্রিয়া, যা ছোটবড় সকলেরই হয়ে থাকেস্বাভাবিক প্রক্রিয়া এবং আনারস ছাড়া অন্য যেকোনো টক জাতীয় খাবারের জন্যও প্রযোজ্য। কিন্তু এর কারণে এমন কোন বিষক্রিয়া তৈরি হয় না, যাতে মানুষ মারা যেতে পারে। এরকম ‘অপ্রক্রিয়াজাত’ ছানা এবং ‘আনারস মিশিয়ে’ বানানো ছানার মধ্যে গঠনগত কোন পার্থক্য নেই। তাই এমন ‘কাঁচা’ ছানা খেলে যেসব শারীরিক সমস্যা হতে পারে (বিশেষত গ্যাস্ট্রিকজনিত কোন সমস্যা থাকলে), আনারস ও দুধ একসাথে খেলেও ঠিক সেই রকমই সমস্যা হতে পারে। এছাড়া বিশেষ কোন সমস্যা বা বিষক্রিয়া হবে না।

তবে এখানে বলে রাখা দরকার, আনারস কিংবা দুধে কারো কারো এলার্জী থাকতে পারে। সেক্ষেত্রে আনারস গ্রহণে কিংবা দুধ পানে বিরূপ শারীরিক প্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে। এই জন্যই আলসার বা গ্যাস্ট্রিক বা ‘ল্যাক্টোজেন টলারেন্স’ কম এমন রোগীদেরকে দুধ পান করতে কিংবা বেশি পরিমাণে টক জাতীয় ফল খেতে নিরুৎসাহিত করা হয়। এই ধরণের পূর্ব শারীরিক অবস্থা না থাকলে, দুধ ও আনারস একসাথে খেলে আলাদা করে কোন স্বাস্থ্যঝুঁকি নেই। উল্লেখ্য বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে আনারস ও দুধের তৈরি জনপ্রিয় বিভিন্ন পানীয় রয়েছে, যার মধ্যে ভাইফালা, বাবল টি পাইন্যাপল স্মুদিস, ওটাই, মিল্কশেক ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য। এসব পানীয়তেও কোন বিষক্রিয়া হওয়ার প্রমাণ পাওয়া যায় না।

(তথ্যসূত্রঃ বিস্ময়.কম)

10 এপ্রিল উত্তর প্রদান

সংশ্লিষ্ট প্রশ্নসমূহ

1 টি উত্তর
1 টি উত্তর
1 টি উত্তর
...