10 জন দেখেছেন
"রোগ ও চিকিৎসা" বিভাগে করেছেন (15,173 পয়েন্ট)

1 উত্তর

0 পছন্দ 0"> 0 জনের অপছন্দ
স্বাস্থ্যখাতে খরচও কমে৷ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার রিপোর্ট অনুযায়ী, প্রতি বছর সারা বিশ্বে ৯.৪ মিলিয়ন মানুষ হার্ট অ্যাটাক ও স্ট্রোকে মারা যায়৷ যা মূলত ঘটে থাকে উচ্চরক্তচাপের কারণে৷ সারা বিশ্বে সবচেয়ে বেশি মানুষ মারা যায় স্ট্রোক ও হার্ট অ্যাটাকে, যদি রোগ দুটিকে এক সঙ্গে ধরা হয়৷

 

ইউরোপের তুলনায় আফ্রিকা ও এশিয়ার দেশগুলিতে বেশিরভাগ মানুষ সংক্রামক ব্যাধিতে আক্রান্ত হয়ে মারা যায়৷ কিন্তু হার্টঅ্যাটাক ও স্ট্রোকের মতো তথাকথিক সভ্যতার রোগ ব্যাধিগুলি এখন আর পিছিয়ে নেই৷ আফ্রিকা ও এশিয়ায় বিস্তৃত হচ্ছে এসব৷

 

ডাব্লিউএইচও-র তথ্য অনুযায়ী, ৪৬ শতাংশ আফ্রিকান ৬০ বছর বয়স হওয়ার আগেই হৃদযন্ত্রের অসুখ বিসুখে মারা যায়৷ শিল্পোন্নত অনেক দেশে অকাল মৃত্যুর জন্য মূলত হার্ট ও মস্তিষ্কের রোগ ব্যাধি দায়ী৷ ডাব্লিউএইচও-র অসংক্রামক ব্যাধি বিভাগের ডা. শান্তি মেন্ডিস এই প্রসঙ্গে বলেন, "উন্নয়নশীল দেশগুলিতে এখন এই ধরনের রোগব্যাধির হার বৃদ্ধি পাচ্ছে৷ উচ্চরক্তচাপের মতো উপসর্গগুলিই এর মূল কারণ৷"

 

ঝুঁকিতে এখন দরিদ্র দেশের জনগণ :-

কারো দেহে উচ্চ রক্তচাপ সনাক্ত করা হলেই যে তিনি ধীরে ধীরে মৃত্যুমুখে পড়বেন, তা নয়৷ সঠিক সময় ধরা পড়লে এর চিকিত্সা সম্ভব৷ ধনী দেশগুলিতে লোকজন নিয়মিত ডাক্তারের কাছে চিকিত্সা ও চেকআপের জন্য যান৷ এক্ষেত্রে রক্তচাপ মাপাটা একটি রুটিন মাত্র৷ স্বাস্থ্যবিমা এসব খরচ বহন করে৷ উচ্চ রক্তচাপ ধরা পড়লে সাথে সাথে এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া যায়৷ কিন্তু দরিদ্র দেশগুলিতে স্বাস্থ্য বিমার তেমন কোনো ব্যবস্থা নেই৷ চিকিত্সা ও চেকআপের খরচ রোগীদের পকেট থেকেই দিতে হয়৷ তাই অনেকেই কঠিন কোনো উপসর্গ না থাকলে ডাক্তার দেখাতে চান না৷ ফলে উচ্চরক্তচাপের মত রোগ ধরা পড়েনা৷ তাই এটি দমন করার জন্য কোনো ব্যবস্থাও নেওয়া হয় না৷

 

ডাব্লিউএইচও-র প্রধান মার্গারেট চ্যান সতর্ক করে বলেন, ‘"সাধারণত উচ্চ রক্তচাপ বহু বছর ধরে থাকলেও কোনো লক্ষণ প্রকাশ পায় না৷ এর মাত্রা অত্যন্ত উঁচু হলেও ভুক্তভোগীরা তা বুঝতে পারে না৷"

 

বিশ্বের বহু মানুষ ভুক্তভোগী :-

বিশ্বব্যাপী এক বিলিয়ন মানুষ উচ্চরক্তচাপে ভুগছেন৷ ধারণা করা হয়, এই সংখ্যাটা আরো বৃদ্ধি পাবে৷ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এর কারণ হিসাবে অস্বাস্থ্যকর জীবনযাত্রাই দায়ী বলে মনে করে৷ খাবারে অতিরিক্ত লবন, মদ্যপান, ধূমপান, আলস্য ইত্যাদি উচ্চরক্তচাপের পথকে প্রশস্ত করে৷ ড. মেন্ডিস এই প্রবণতাটা ইদানীং আফ্রিকার বিভিন্ন দেশেও লক্ষ্য করছেন৷ নগরায়নের সাথে সাথে মানুষের জীবনযাত্রারও পরিবর্তন হচ্ছে সেসব দেশে৷ আগে সেখানকার মানুষের খাদ্যাভ্যাস অন্যরকম ছিল৷ কায়িক পরিশ্রমেও অভ্যস্ত ছিলেন তারা৷ আজকাল স্যুপ ও বিভিন্ন খাবারে বেশি লবণ ব্যবহার করা হচ্ছে সেখানে৷ কায়িক পরিশ্রমেও অনীহা লক্ষ্য করা যায়৷ আর এসবই উচ্চ রক্তচাপকে প্রভাবিত করে৷

 

কম লবণ, বেশি ফলমূল ও তরিতরকারি এবং হাঁটাচলা এই কয়েকটি দিকে লক্ষ্য রাখলেই উচ্চ রক্তচাপকে আয়ত্তে আনা যায়৷ এই রোগের চিকিত্সায় খরচও খুব বেশি নয়৷ সস্তায় এখন নানা ধরনের ওষুধপত্র পাওয়া যায়৷ দরিদ্র দেশগুলিতে বছরে একজন এক ডলারেরও কম খরচে এই রোগের চিকিত্সা করাতে পারে৷ মধ্য আয়ের দেশগুলিতে বছরে এ বাবদ দুই থেকে তিন ডলারের মতো লাগতে পারে৷

 

অন্যদিকে, উচ্চ রক্তচাপের চিকিৎসা না করালে খরচটা অনেক বেশি হতে পারে৷ যেমন একারণে হার্টের অসুখ বিসুখ দেখা দিলে তার চিকিত্সা বা বাইপাস অপারেশন করাতে হলে৷

 

রক্তচাপ পরীক্ষা জরুরি :-

ডাব্লিউএইচও-র প্রধান মার্গারেট চান মনে করেন, রক্তচাপ পরীক্ষা বিনামূল্যে হওয়া উচিত৷ আর এক্ষেত্রে বিভিন্ন দেশে সরকারি উদ্যোগ নেওয়া প্রয়োজন৷ তবে সবার আগে প্রত্যেককে স্বাস্থ্য সম্পর্কে সচেতন হতে হবে৷ জানতে হবে রক্তচাপের পরিমাপ৷ পরিবর্তন করতে হবে জীবনযাত্রা৷ প্রয়োজন হলে খেতে হবে ওষুধ৷ এই ভাবেই এই অদৃশ্য ও নীরব ঘাতকটির বিরুদ্ধে করতে হবে লড়াই৷
করেছেন (15,173 পয়েন্ট)

সংশ্লিষ্ট প্রশ্নসমূহ

1 টি উত্তর
27 অক্টোবর 2019 "রোগ ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Rihan Afreen (15,173 পয়েন্ট)
1 টি উত্তর
27 অক্টোবর 2019 "রোগ ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Rihan Afreen (15,173 পয়েন্ট)
1 টি উত্তর
27 অক্টোবর 2019 "রোগ ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Rihan Afreen (15,173 পয়েন্ট)
1 টি উত্তর
27 অক্টোবর 2019 "রোগ ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Rihan Afreen (15,173 পয়েন্ট)
1 টি উত্তর
18 মার্চ "রসায়ন বিদ্যা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Roki (12,906 পয়েন্ট)
1 টি উত্তর
1 টি উত্তর
1 টি উত্তর
...