56 জন দেখেছেন
24 আগস্ট 2019 "সৌন্দর্য ও রূপচর্চা" বিভাগে জিজ্ঞাসা

3 উত্তর

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
প্রথমেই বলব প্রচুর পরিমান পানি খান। নিয়মিত মুখ পরিস্কার রাখুন। দয়া করে ব্রণ হলে খুটবেন না।  ত্বক পরিস্কার থাকলে ব্রণ হবে না তাহলে কালো দাগ দূর করার টেনশনও থাকবে না।

ইতিমধ্যে যাদের কালো দাগ হয়েছে তারা যা যা করতে পারেনঃ

আপেল এবং কমলার খোসা একসাথে বেটে এর সাথে ১ চামচ দুধ, ডিমের সাদা অংশ এবং কমলার রস মেশান। এবার মিশ্রনটা ত্বকে ২০ মিনিট লাগিয়ে রেখে ধুয়ে ফেলুন।
একটি ডিম, ২ টেবিল চামচ অলিভ অয়েল, একটি গোটা লেবুর রস ভালো করে মিশিয়ে নিন, এটি নখ, গলা, হাত ও ঘাড়ের কালো ছোপে ১৫-২০ মিনিট লাগিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এতে ব্রণের দাগ, হাত, ঘাড়ের কালো ছোপ ইত্যাদি সেরে যাবে।
২ চামচ বেসন, ১ চা চামচ কাঁচা হলুদ বাটা, ১ চা চামচ কমলার খোসা বাটা একসাথে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এবার এটা মুখে ঘাড়ে মাখিয়ে রেখে ১৫-২০ মিনিট পর মুখ ধুয়ে ফেলুন।
আধাপাকা চিনির সাথে অলিভ অয়েল মিশিয়ে সারাগায়ে মেখে শুকাতে দিন। শুকিয়ে গেলে এটিকে ঘষে তুলে ফেলুন। এবার সামান্য গরম পানিতে ভালো করে গোসল করে নিন। সপ্তাহে একবার করবেন। এতে শরীরের ত্বক মসৃণ থাকবে।নিত্যদিনের খাবারের তালিকায় এ ভিটামিন যুক্ত খাবার অবশ্যই রাখবেন। ভিটামিন এ এর প্রধান উৎস প্রাণীজ প্রোটিন যেমন যকৃত, ডিমের কুসুম, দুধ, মলা-ঢেলা, পুঁটি মাছ, কচুশাক, লাউশাক, পেঁপে, মিষ্টি কুমড়া, কাঁঠাল ইত্যাদি।
২ চা চামচ চিনা বাদাম বাটা, ২ চা চামচ দুধের সর মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে ১০-২০ মিনিট পর ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। ব্রণের দাগ মিলিয়ে যাবে।পাকা পেঁপের শাঁস মুখে মেখে নিন। ১ চামচ পাকা পেঁপের শাঁস ও ১ চামচ শশার রস মুখে মেখে নিন। ত্বক উজ্জ্বল হবে।
ব্রণ থাকাকালীন মুখমন্ডলের ত্বকে কোন তৈলাক্ত পদার্থ ও ক্রিম লাগাবেন না।১ চা চামচ লেবুর রস ও ১ চামচ মধু মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে ১০-২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলবন। মুখে লাবণ্য আসবে।
24 আগস্ট 2019 উত্তর প্রদান
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
প্রচুর পানি খান । ত্বক সুন্দর রাখতে প্রতিদিন একটা কাচা মরিচ খান । ব্রণের দাগ দূর করতে + ব্রণ উঠা বন্ধ করতে "ক্লিনডাক্র প্লাস জেল" ফার্মেসি থেকে ১১০ টাকা দিয়ে কিনে ব্যাবহার করুণ ।
15 জানুয়ারি উত্তর প্রদান
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ

ব্রণ ত্বকের এমন একটি সমস্যা যা বারবারই ফিরে আসে। সাধারণত তৈলাক্ত ত্বকে ব্রণ বেশি হয়। আবার যাদের খুশকির সমস্যা রয়েছে, তাদেরও ব্রণ হয়। এ ছাড়া ময়লা-ধুলাবালি, প্রসাধনীর ব্যবহার ও অপর্যাপ্ত ঘুম তো রয়েছেই। এই সমস্যার পুরোপুরি সমাধান চাইলে নিমপাতার বিকল্প নেই। মাত্র এক সপ্তাহ টানা নিমপাতা ব্যবহারে ত্বকের ব্রণ একেবারেই দূর হয়।

খুব সহজে ব্রণ দূর করতে কীভাবে ত্বকে নিমপাতা ব্যবহার করবেন সে সম্বন্ধে তিনটি পরামর্শ দেওয়া হয়েছে বোল্ডস্কাই ওয়েবসাইটের লাইফস্টাইল বিভাগে।

নিমপাতার তেল

একটি ছোট বাটিতে নিমপাতার তেল নিয়ে হালকা গরম করুন। এবার এই তেল দিয়ে রাতে ঘুমানোর আগে প্রতিদিন ম্যাসাজ করুন। সারা রাত এভাবে রেখে দিন। সকালে ভালো করে মুখ ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন অনেক দ্রুত আপনার মুখের ব্রণ দূর হয়ে যাবে।

নিমপাতা ও হলুদ গুঁড়ো

যদি আপনার মুখে ব্রণের পরিমাণ বেশি থাকে, তাহলে নিমপাতা বাটার সঙ্গে সামান্য হলুদ গুঁড়ো মিশিয়ে মুখে লাগান। নিমপাতার মতো হলুদের গুঁড়োও মুখে অ্যান্টিসেপটিকের কাজ করে। এই প্যাক ব্রণের জীবাণু পুরোপুরি ধ্বংস করে।

নিমপাতা ও দারুচিনি গুঁড়ো

এক চা চামচ দারুচিনি গুঁড়োর সঙ্গে দুই টেবিল চামচ নিমপাতা বাটা মিশিয়ে মুখে লাগান। ১৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাক ব্রণের মুখ বন্ধ করে, যাতে পুনরায় ফিরে না আসে।

15 জানুয়ারি উত্তর প্রদান

সংশ্লিষ্ট প্রশ্নসমূহ

2 টি উত্তর
2 টি উত্তর
2 টি উত্তর
2 টি উত্তর
...